কা’শ্মীরে গ্যাস মজুদ-স্কুল খালির নির্দেশ, যু’দ্ধে জড়াচ্ছে ভা’রত?

ভা’রত শাসিত কা’শ্মীরে আগামী দুই মাসের জন্য রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডার মজুত রাখতে এবং বেশ কিছু স্কুল নিরাপত্তা বাহিনীর জন্য খালি করার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। এনিয়ে সেখানকার মানুষের মাঝে যু’দ্ধ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এই সময় বলছে, চীন কিংবা পা’কিস্তান- কার সঙ্গে আগে যু’দ্ধে জড়াবে ভা’রত বিষয়টি এখনো স্পষ্ট নয়। তবুও কা’শ্মীরে যেন ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে যু’দ্ধ প্রস্তুতি।

সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, জম্মু-কা’শ্মীর প্রশাসনের পক্ষ থেকে রাজ্যের এলপিজি গ্যাসের ডিস্ট্রিবিউটদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আগামী দুই মাসের জন্যে রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডার মজুত রাখতে। অবশ্য প্রশাসন বলছে, ভূমিধসের কারণে জাতীয় সড়কে পণ্য পরিবহণ ব্যাহত হতে পারে। সেই কারণেই কা’শ্মীরে আগামী দুই মাসের জন্য এলপিজি গ্যাস পর্যাপ্ত মজুত রাখতে বলা হচ্ছে।

শুধু তাই নয়, গান্ডারওয়াল এলাকার পু’লিশ সুপারের দপ্তর থেকেও জারি করা নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এলাকার ১৬টি স্কুল নিরাপত্তা কর্মীদের জন্যে ব্যবহার করা হবে। তাই ওই স্কুলগুলো যেন খালি করা হয়। গান্ডারওয়াল কা’শ্মীরের কারগিল সংলগ্ন এলাকা। স্থানীয় মানুষজনের মতে, সরকারের পক্ষ থেকে যে কারণই দেখানো হোক না কেন, আগের অ’ভিজ্ঞতা তাদের রয়েছে। তাই বেশ বড় ধরনের কিছুই যে ঘটতে চলেছে, তা নিয়ে নিশ্চিত তারা।

এদিকে সংঘাতপূর্ণ লাদাখ এলাকায় সৈন্য সমাবেশ ও সাম’রিক সরঞ্জাম অব্যাহতভাবে বাড়িয়ে চলেছে চীন ও ভা’রত। দুই পক্ষের সে’নারা রীতিমতো চোখে চোখ রেখে অবস্থান নিয়েছে বলে জানিয়েছে দ্য হিন্দু।

গত ১৫ জুন লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীন ও ভা’রতের সে’নাদের মধ্যে সং’ঘর্ষ বাঁধে। এতে প্রা’ণ হারায় ২০ জন ভা’রতীয় সে’না। আ’হত হন কমপক্ষে ৭৬ জন। চীন হতাহতের কথা স্বীকার করলেও সংখ্যা প্রকাশ করবে না বলে জানিয়েছে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *