স্বাদ-গন্ধের অনুভূতি কমলেও বিপদ

0
6

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের লক্ষণ হিসেবে জ্বর, শুষ্ক কাশি, গলাব্যথা, শ্বাসকষ্ট, ক্ষেত্রবিশেষে ডায়রিয়ার কথা উল্লেখ করেছেন চিকিৎসকরা। তবে সম্প্রতি এক গবেষণার পর ব্রিটিশ অ্যাসোসিয়েশন অব অটোরহিনোলারিনগোলজি জানিয়েছে, প্রচলিত এসব উপসর্গ ছাড়াও কেউ যদি হঠাৎ স্বাদ ও গন্ধের ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন তা হলেও বিপদ। কারণ এ দুটি লক্ষণও করোনা ভাইরাস সংক্রমণের উপসর্গ হতে পারে। স্কাই নিউজের

খবরে জানানো হয়, করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা করতে গিয়ে কিছুদিন আগে যুক্তরাজ্যের জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা (এনএইচএস) বিভাগের দুই চিকিৎসক সংক্রমিত হন। পরে তাদের ওপর গবেষণা চালিয়ে অ্যাসোসিয়েশন অব অটোরহিনোলারিনগোলজি নতুন দুটি উপসর্গের ব্যাপারে সাবধান করেছে।

এক বিৃবতিতে প্রতিষ্ঠানটি বলেছে, শুধু যুক্তরাজ্য নয় করোনা আক্রান্ত অন্যান্য দেশ থেকে পাওয়া প্রমাণ বলছে, এই ভাইরাস সাধারণত চোখ, নাক ও গলার মধ্যে দিয়েই শরীরে প্রবেশ করে। আমরা একটি নতুন লক্ষণ শনাক্ত করেছি। কিছু আক্রান্তের ক্ষেত্রে জ্বর বা অন্য কোনো উপসর্গ না থাকলেও স্বাদ ও গন্ধের অনুভূতি হ্রাস পেতে পারে। সুতরাং হঠাৎ করেই যাদের মধ্যে এই দুই উপসর্গ প্রকাশ পাবে তাদের উচিত নিজেকে অন্যদের কাছ থেকে আলাদা করে ফেলা, যাতে তিনি আক্রান্ত হলে তার মাধ্যমে এই ভাইরাস অন্যদের মধ্যে ছড়িয়ে না পড়ে।

অ্যাসোসিয়েশন অব অটোরহিনোলারিনগোলজির অন্যতম চিকিৎসক অধ্যাপক নির্মল কুমারম বলেন, ‘অপেক্ষাকৃত তরুণ আক্রান্তদের মধ্যে জ্বর, কাশির মতো উপসর্গগুলো প্রকাশ না-ও পেতে পারে; কিন্তু তারা হঠাৎই স্বাদ ও গন্ধের অনুভূতি হারিয়ে ফেলতে পারেন। যা ইঙ্গিত করে ওই ব্যক্তির নাকে ভাইরাস প্রবেশ করেছে।’ সম্প্রতি করোনা রোগীদের চিকিৎসা করতে গিয়ে দুই এনএইচএস বিশেষেজ্ঞ আক্রান্ত হন, পরে তাদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসা দেওয়া হয় বলেও জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here