যথাযথ মর্যাদায় পবিত্র আশুরা পালিত

0
44

যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আজ রোববার সারাদেশে পবিত্র আশুরা পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে সারাদেশে বিভিন্ন মসজিদ, মাদরাসা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে আশুরার তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। তা’ ছাড়া বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। বাসা বাড়িতে ভালো খাবার পরিবেশন ও বিতরণ করা হয়েছে। পবিত্র আশুরা উপলক্ষে অনেকে গত দুইদিন রোজা রেখেছেন।
সারা বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ ও শোকাবহ এক দিন আজ। দিনটি (১০ মুহাররম) পবিত্র আশুরা নামে পরিচিত। হিজরী ৬১ সনের এই দিনে সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে যুদ্ধ করতে গিয়ে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর দৌহিত্র হযরত ইমাম হোসাইন (রা.) এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা কারবালার ময়দানে ইয়াজিদের সৈন্যদের হাতে শহীদ হন।
শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম ইসলামের মহান আদর্শকে সমুন্নত রাখতে হযরত ইমাম হোসাইনের (রা.) আত্মত্যাগ মানবতার ইতিহাসে সমুজ্জ্বল হয়ে আছে। কারবালার শোকাবহ ঘটনা অন্যায় ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে এবং সত্য ও সুন্দরের পথে চলতে প্রেরণা জোগায়।

    
১০ মুহাররমে অনেক ফজিলতময় ঘটনা ঘটেছে। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা নফল রোজা, নামাজ, জিকির আসকারের মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করেছেন। মুসলিম বিশ্বে ত্যাগ ও শোকের প্রতীক হিসেবে দিনটি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ পবিত্রতম দিবস।
আশুরা উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটি। দেশব্যাপী বিভিন্ন সংগঠন আশুরা উপলক্ষে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে গতকাল শনিবার বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ‘আশুরার তাৎপর্য ও শিক্ষা’ শীর্ষক ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মাহফিলে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি এহসানুল হক জিলানী।
এ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তারা কারবালার ঐতিহাসিক ঘটনা তুলে ধরেন এবং ইয়াজিদের সাথে হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর দৌহিত্র ইমাম হোসাইন (রা.) এর সত্য মিথ্যার দ্বন্দ্বের তাৎপর্য উল্লেখ করেন। পবিত্র আশুরা উপলক্ষে বিভিন্ন টিভি চ্যানেল ও বেতার বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালা প্রচার করেছে। পাশাপাশি পত্র পত্রিকাসমূহে ফিচার ও রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে। এমন কী এ দিনেই কেয়ামত সংঘটিত হবে। সুতরাং এ দিনের তাৎপর্য ও মর্যাদা অনেক।
    
এদিকে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও বিস্তার ঠেকাতে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিল ও সমাবেশ করার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। কিন্তু রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জেনেভা ক্যাম্পের বাসিন্দারা পুলিশের বাধা ভেঙে রাস্তায় বেরিয়েছেন।
আজ রোববার দুপুরে জেনেভা ক্যাম্পের পূর্ব দিকের গলি থেকে কয়েক শ’ মানুষ তাজিয়া মিছিল নিয়ে বের হলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। পরে পুলিশের বাধা অতিক্রম করে তাজিয়া মিছিল নিয়ে তারা গজনবী সড়ক দখল করে চক্কর দিতে থাকে। পুলিশ বলছে, শিয়া সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে মিছিল ও সমাবেশ না করার জন্য বলা হয়েছিল। সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে মোহাম্পদপুর জেনেভা ক্যাম্পে কন্ট্রোল রুম স্থাপনসহ পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে। আশুরা উপলক্ষে আজ রোববার সব ধরনের তাজিয়া, শোক ও মাইক মিছিল নিষিদ্ধ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। তবে বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ইমামবাড়াগুলোতে ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করা যাবে বলে জানানো হয়েছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here