বাবার পর মা’রা গেলেন মাও, অসহায় দৃষ্টিতে মানুষের দিকে তাকিয়ে থাকে তারা

0
8

সু’স্থভাবে বাঁ’চতে হাসপাতা’লে স্ত্রী’ জেসমিন আক্তারকে নিয়ে যান স্বামী নোমান মিয়া। হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার পথে বাসের ধা’ক্কায় ঘটনাস্থলে প্রা’ণ হা’রান নোমান।

গু’রুতর আ’হত স্ত্রী’ ছয়দিন হাসপাতা’লে চি’কিৎসাধীন থাকার পর মৃ’ত্যুকে আলি’ঙ্গন করেন।

এতে এতিম হয়ে গেল এ দম্পতির দেড় বছরের যমজ শি’শু। বাবার পর মায়ের মৃ’ত্যুতে জমজ শি’শুরা এখন অ’সহায়। তাদের অ’সহায় চাহনি অনেককে আপ্লুত করছে।গত

শুক্রবার অ’সুস্থ স্ত্রী’ জেসমিনকে হাসপাতা’লে নিয়ে যান শায়েস্তাগঞ্জের নূরপুর ইউপির চাঁনপুর গ্রামের আবদুল

মতলিবের ছে’লে নোমান। হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার সময় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শায়েস্তাগঞ্জ নূরপুর এলাকায় তাদের বহনকারী অটোরিকশাকে ধা’ক্কা দেয় বাস। এতে

ঘ’টনাস্থলেই মৃ’ত্যুকে আলি’ঙ্গন করেন নোমান। ওই সময় স্ত্রী’’সহ আরো তিনজন আ’হত হন। এর মধ্যে জেসমিনের অবস্থা আ’শ’ঙ্কাজনক ছিল। তাকে উ’দ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে ভর্তি করা হয়। টানা ছয়দিন

মৃ’ত্যুর সঙ্গে পা’ঞ্জা ল’ড়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে মা’রা যান জেসমিন।নূরপুর ইউপির চেয়ারম্যান মো. মুখলিছ মিয়া জানান, নোমানের পর তার স্ত্রী’ জেসমিনও মা’রা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাত ১০ টায় তার ম’রদেহ দাফন করা হয়েছে।

এদিকে, নি’হত দম্পতির বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় হৃ’দয়বিদারক দৃশ্য। নোমান-জেসমিন

দ’ম্পতির যমজ মে’য়ে রয়েছে। তাদের বয়স দেড় বছর। শি’শুরা বাবা-মাকে হা’রিয়ে অ’সহায় হয়ে প’ড়েছে।সব সময় অ’সহায় দৃষ্টিতে মা’নুষের দিকে তাকিয়ে থাকে তারা। এ দৃশ্য দেখে অনেকে আপ্লুত হয়ে পড়ছেন। আর স্ব’জনরা তাদের নিয়ে দু’শ্চিন্তায় রয়েছেন।দুই শি’শু এখন দাদা-দাদির জিম্মায় রয়েছে।সুত্রঃ কোলাহল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here