বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ওয়ানডে একাদশ যেমন হতে পারে

0
18

আমাদের ওয়ানডে ক্রিকেটের সর্বকালের শুরুটা হয় ১৯৮৬ সালের ৩১ মার্চ শ্রীলঙ্কার মোরাতুয়ার টায়রন ফার্নান্ডো স্টেডিয়ামে, সেটি ছিল ৩৭৫তম একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ। সে থেকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডেতে প্রতিনিধিত্ব করেছেন ১৩৩ জন ক্রিকেটার। এসব ক্রিকেটারদের মধ্য থেকে সর্বকালের সেরা ১১ জন নির্বাচন করেছে দেশের শীর্ষস্হানীয় গণমাধ্যম দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।

একাদশে ওপেনার হিসেবে প্রথম পছন্দ দেশসেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। ১৩ সেঞ্চুরিতে ৭২০২ রান করা টাইগার বর্তমান ওয়ানডে অধিনায়ক যে দেশের সর্বকালের সেরা ওয়ানডে একাদশে থাকবেন তাতে কোন বিতর্ক নেই।

তামিমের পার্টনার হিসেবে রাখা হয়েছে শাহরিয়ার নাফিসকে। জাভেদ ওমর বেলিম, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, অনেকেই ওপেনিংয়ে খেললেও ব্যাট হাতে ২২০১ রান করা নাফিসকেই উপযুক্ত মনে করেছেন তারা।

টপ অর্ডারে দেশের ক্রিকেটের প্রথম ব্যাটিং তারকা মোহাম্মদ আশরাফুলের জায়গা অবধারিত। বিপিএলে ফিক্সিং কান্ডে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়লেও এখনো দেশের সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যানের একজন মোহাম্মদ আশরাফুল। দেশের সেরা রান সংগ্রাহকের তালিকাতে টপ ফাইভে তার অবস্থান। ২২.৩৭ গড়ে আশরাফুলের ওয়ানডেতে রান ৩,৪৬৮।

চার নম্বরে রাখা হয়েছে মি.ফিফটি খ্যাত হাবিবুল হাশার সুমনকে। যার ঝুলিতে নেই কোন শতক। তবে রয়েছে ১৪ টি ফিফটি। রান করেছেন ২,১৬৮।

একাদশে পাঁচ নম্বর পজিশনটা দেশের ক্রিকেটের পোস্টারবয় সাকিব আল হাসানের জন্য বরাদ্দ। ব্যাট হাতে ৬ হাজারের বেশি রান ও বল হাতে ২০০ এর বেশি উইকেট নেওয়া বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার দেশের যেকোন সময়ের একাদশে থাকবেন সেটা বলাই বাহুল্য।

৬ নম্বরে থাকছেন মি. ডিপেন্ডেবল খ্যাত উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিম। ব্যাট হাতে দেশের হয়ে ৬,১৭৪ রান করা মুশফিকের পজিশনটা উইকেটরক্ষক হওয়ায় একটু পেছনেই পড়ে গেছে। উইকেটের পেছনে তার ঝুলিতে রয়েছে ২২৩ টি ডিসমিসাল।

৭ নম্বরে সাইলেন্ট কিলার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ব্যাট হাতে ৪ হাজারেরও বেশি রান করেছেন তিনি। বল হাতে নিয়েছেন ৭৬ উইকেট। দেশের অন্যতম সেরা ফিনিশারও এখন তিনিই।

বোলিংয়ে সবার প্রথম পছন্দ দেশসেরা পেসার মাশরাফি বিন মুর্তজা। দেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ২৬৯ উইকেট তার ঝুলিতে। ব্যাট হাতেও কম যাননা ম্যাশ। করেছেন ১,৭৭৩ রান। দেশকে অর্ধশতক জয় এনে দিয়ে কদিন আগে অধিনায়কত্ব ছাড়া মাশরাফির পজিশনটা ৮ এ থাকছে।

নয়ে রাখা হয়েছে দেশের অন্যতম সেরা স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকে। যার ঝুলিতে ২০৭ উইকেট রয়েছে। এর পরে একাদশে জায়গায় পেছে দুই পেসার মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন। দেশের হয়ে সদ্য শুরু হলেও মোস্তাফিজের একাদশে থাকা নিয়ে কারোই বিতর্ক থাকবেনা। কেননা সবশেষ বিশ্বকাপেও সবচেয়ে উইকেট নেওয়ার বোলারদের পাশে নিজের নাম লিখিয়েছেন ফিজ। নিয়েছিলেন ২০ উইকেট।

অন্যদিকে বাংলাদেশের অন্যতম জয়ে পেসার রুবেলের অবদান নেহাত কম নয়। ২০১৫ বিশ্বকাপে দেশকে কোয়ার্টার ফাইনালে নেওয়ার তার অবদান অনস্বীকার্য। এখন পর্যন্ত ১২৬ উইকেট তার ঝুলিতে।

বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ওয়ানডে একাদশ:
তামিম ইকবাল, শাহরিয়ার নাফিস, মোহাম্মদ আশরাফুল, হাবিবুল বাশার সুমন, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মাশরাফি বিন মুর্তজা(অধিনায়ক), আব্দুর রাজ্জাক, মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here