জুন মাস পর্যন্ত মওকুফ করা হলো বিদ্যুৎ ও গ্যাস বিলের বিলম্ব ফি

0
16

এবার বিদ্যুৎ বিভাগ জুন মাস পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব ফি মওকুফ করেছে। সচিবালয়ের বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী ও জ্বালানি নসরুল হামিদ বিপু গত রোববার ৩১ মে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন এ মহামারিতে ঝুঁকি নিয়ে তাড়াতাড়ি করে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে না। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আগামী জুন মাস পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব মাশুল মওকুফ করে দিব। আমাদের কানে এসেছে বিদ্যুৎ বিল নিয়ে গ্রাহকদের নানা ভোগান্তির কথা। এবং কারো কোন যদি বাড়তি বিল করা হয় তাহলে তা পরবর্তীতে সমন্বয় করে দেয়া হবে।

যারা আবাসিক গ্রাহক তারা বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য ব্যাংক কিংবা মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যম ব্যবহার করে। বর্তমান মহামারীর ভয়ে গ্রাহকদের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা সম্ভব হবে না। এজন্য মন্ত্রণালয় থেকে গত মার্চ মাসে এক আদেশ জারি করে বিআরসিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে যাতে ওরে ফেব্রুয়ারি , মার্চ ও এপ্রিল মাসের বিল কোনরকম বিলম্ব মাশুল ছাড়া জুন মাসে জমা নেয়ার জন্য।

প্রসঙ্গত এর আগে বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব মাশুল মওকুফ করা হয়েছিল মে মাস পর্যন্ত। এ আদেশ দেয়া হয়েছিল গত ২২ শে মার্চ। যাতে উল্লেখ্য ছিল মে মাস পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব ফি মওকুফ করা হয়েছে। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসির) কাছে এই নিয়ে একটি চিঠি পাঠানো হয়।

জ্বালানি বিভাগের উপসচিব আকরামুজ্জামান স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয় , আবাসিকের গ্রাহক নির্দিষ্ট সময়ে গ্যাস বিল জমা দিতে বিপুল সংখ্যক গ্রাহক ব্যাংকে একসঙ্গে গিয়ে জমা হয়।এভাবে যদি একসঙ্গে অনেক মানুষ ব্যাংকে গিয়ে বিল জমা দিতে উপস্থিত হয় তাহলে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে। এই পরিস্থিতে সরকার গ্যাস বিপণন নিয়মাবলী (গৃহস্থলী) ২০১৪ শিথিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আবাসিক গ্রাহকরা কোনরকম বিলম্ব মাশুল ছাড়াই ফেব্রুয়ারি , মার্চ ,এপ্রিল ও মে মাসের বিল আগামী জুন মাসে পরিশোধ করতে পারবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here