খাঁটি মধু চেনার উপায় কী?

0
23

মধু পছন্দ করে না এমন লোক খুঁজে পাওয়া ভার। মধুতে রয়েছে বিভিন্ন রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা, তাই মধু এক ধরণের ঔষধি গুণের অধিকারী হিসেবে পরিচিত। শীতের সময় বা ঠান্ডায় শরীর গরম রাখতে সাহায্য করে মধু। বিভিন্ন গায়ের ক্ষত সারাতেও সাহায্য করে মধু। অনেক প্রাচীন কাল থেকেই ঔষধি হিসেবে, বিভিন্ন রোগ সারাতে ও রূপচর্চায় মধু ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

চিত্রের সূত্র: Pinterest

কিন্তু বাজারে ভেজাল মধুর ছড়াছড়ি। খাঁটি মধু চেনা থাকলে খাঁটি মধু কিনতে আমাদের আর অসুবিধা হবে না। তাই এই ব্যাপারে কিছু বলতে চাই।

  1. আসল মধুর স্বাদ হবে মিষ্টি, এতে ঝাঁঝালো ভাব থাকবে না।
  2. মধুতে কটু গন্ধ থাকবে না। খাঁটি মধুর গন্ধ হবে মিষ্টি ও আকর্ষণীয়।
  3. এক টুকরা ব্লটিং পেপার নিন, তাতে কয়েক ফোঁটা মধু দিন, যদি কাগজ তা সম্পূর্ণ শুষে নেয়, বুঝবেন মধুটি খাঁটি নয়।
  4. বুড়ো আঙুলের মাথায় মধু রাখলে যদি একটা বিন্দুর মতো স্থির হয়ে থাকে তাহলে সেটা আসল।
  5. এক টেবিল চামচ মধু নিন ও সামান্য পানি নিন। এখন এই মিশ্রনে ২-৩ ফোঁটা ভিনেগার দিন। যদি এই মিশ্রণটি ফোমের মত হয়ে ওঠে তাহলে বুঝতে হবে মধুতে কিছু মেশানো হয়েছে।
  6. শীতের দিনে বা ঠান্ডায় খাঁটি মধু দানা বেঁধে যায়। একটি মোমবাতি নিয়ে সেটির সলতেটি ভালভাবে মধুতে ডুবিয়ে নিন। এবার আগুন দিয়ে জ্বালাবার চেষ্টা করুন। যদি জ্বলে ওঠে, তাহলে বুঝবেন যে মধু খাঁটি। আর যদি না জ্বলে, বুঝবেন তাতে পানি মেশানো রয়েছে।
  7. কিছুদিন ঘরে রেখে দিলে মধুতে চিনি জমতেই পারে। শিশিসহ মধু গরম পানিতে কিছুক্ষণ রাখলে চিনি গলে মধু আবার স্বাভাবিক হয়ে আসবে। কিন্তু নকল মধুর ক্ষেত্রে তা হবে না।
  8. এক টুকরা সাদা কাপড়ে মধু মাখান। আধঘণ্টা রাখুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দাগ থেকে গেলে বুঝতে হবে সেটি ভেজাল মধু।
  9. গ্লাসে বা বাটিতে কিছুটা পানি নিন। তার মধ্যে এক চামচ মধু দিন। যদি মধু জলের সঙ্গে সহজেই মিশে যায়, তাহলে বুঝবেন যে এটা নকল। আসল মধু সহজে মিশবে না।

উপরোক্ত পদ্ধতিতে খাঁটি মধু চেনা যায় কিনা সেই ব্যাপারে Dr. Lutz ElfleinDr. Zachary Huang কে জিজ্ঞেস করা হলে তাঁদের দু’জনের উত্তর‌ই ছিল, ‘যায় না‘।অর্থাৎ, খাঁটি মধু এভাবে যাচাই করা যায় না।

মধুতে সামান্য মোম মিশিয়ে দিলেই মধুটা সটান পানির তলায় চলে যাবে, জমে থাকবে। আগুন ধরিয়ে দিলে আগুন জ্বলবে।

তাহলে এখন উপায়! খাঁটি মধু চেনার কি আর কোন উপায় নেই?

উত্তর হচ্ছে, কোন উপায় নেই। পৃথিবীর বড় বড় বিজ্ঞানীদের কাছেও নেই।

তবে কিছু উপায় আছে:

  • খাঁটি মধু বা ভেজাল মধু চেনার সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হচ্ছে ল্যাব টেস্ট।
  • মৌচাক থেকে সরাসরি যদি মধু সংগ্রহ করতে পারেন অর্থাৎ, দাঁড়িয়ে থেকে যদি মৌচাক থেকে সংগ্রহ করা মধু মৌয়ালের কাছ থেকে সংগ্রহ করতে পারেন।
  • এটা সম্ভব না হলে, কোনো বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান থেকে মধু সংগ্রহ করতে পারেন। কারো বিশ্বস্ততায় সন্দেহ হলে তার সাথে মধুর খামার পর্যন্ত যেতে পারেন।

সুতরাং মৌমাছিদের মৌচাক থেকে সরাসরি পাওয়া প্রাকৃতিক মধুই সবচেয়ে ভালো, সবচেয়ে খাঁটি। সেই মধুর দাম বেশি হলেও এবং সেই মধু কম ঘন হলেও সেই মধু সবচেয়ে খাঁটি ও ভালো।

তথ্যসূত্র:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here