অটোরিকশা চালকের সততা, পাচ্ছেন পুরস্কার

0
13
অটোরিকশা চালকের সততা

ভুলে ফেলে যাওয়া ৬১ লাখ টাকা মালিককে ফেরত দিলেন অটোরিকশা চালক। ৬১ লাখ টাকা। ভুল করে অটোরিকশায় ফেলে যান এক বিকাশ কর্মক’র্তা। চাঁদপুর শহরের পুরানবাজার হরিসভা রোডের একটি গ্যারেজে টাকাগুলো নিয়ে হাজির হন অটোরিকশা চালক। সন্ধান চলে মালিকের। খবর দেয়া হয় পু’লিশকে।

পুরস্কৃত করার এ খবরে সজিবকে নিয়ে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে পক্ষ-বিপক্ষে মন্তব্যের ঝড় বইছে।

চাঁদপুর শহরে জোড় পুকুর এলাকা থেকে বিকাশের অনেক টাকা নিয়ে অটোরিকশার একচালক চলে গেছে। এমন সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে সর্বত্র। দুপুর গড়িয়ে বেলা শেষে চালক মো. সজিব তার ভগ্নিপতি পুরানবাজারের ঘাটশ্রমিক আবুল কাশেমকে নিজের কাছে এই টাকা থাকার কথা জানায়। এ সময় সে নিজেই টাকাগুলো ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে সহযোগিতা নেওয়া, বাদল নামে একজনের। রোববার সন্ধ্যায় এই বাদল সদর মডেল থা’নার ওসি মো. নাসিমউদ্দিনকে মুঠোফোনে বিষয়টি জানান। পরে পুরানবাজারের একটি গ্যারেজ থেকে ৬১ লাখ টাকার লালব্যাগটি উ’দ্ধার করেন থা’নার ওসি। এ সময় জিজ্ঞাবাসাদের জন্য সজিবকে থা’না নিয়ে আসা হয়। পু’লিশের কাছে সজিব স্বীকার করেন, মালিক খুঁজে না পাওয়ায় এই টাকা নিজের কাছে রেখেছিলেন।

এর আগে রোববার বেলা ১১টায় শহরের পৌরসভা কার্যালয়ের পাশে ইউসিবিএল ব্যাংক থেকে বিকাশ এজেন্টের একজন কর্মী ৬১ লাখ টাকা তোলেন। পরে ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশা নিয়ে শহরের জোড় পুকুরপাড়ে যান তিনি। এ সময় ভুল করে টাকাভর্তি লাল রঙের ভ্যাগটি অটোরিক্শায় রেখে নেমে যান মাসুদ নামে এই বিকাশকর্মী। তারপরও টাকাসহ ঘটনাস্থল কিছু সময় অ’পেক্ষা করে সেখান থেকে চলে যায় অটোচালক।

এই ঘটনার পর বিকাশের স্থানীয় এজেন্ট আলমগীর আলম জুয়েলসহ ওই কর্মী সদর মডেল থা’নায় ছুটে যান। পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে সেখানে থাকা সিসিক্যামেরার ফুটেজ দেখে শহরের বিভিন্নস্থানে থা’না ও গোয়েন্দা পু’লিশ অ’ভিযান শুরু করে।

অ’ভিযানের একপর্যায়ে সন্ধ্যা ৭টায় সেই ৬১ লাখ টাকার সন্ধান পায় পু’লিশ। পরে শহরের পুরানবাজারের একটি গ্যারেজ থেকে টাকাসহ মো. সজিব নামে অটোরিকশা চালককে থা’নায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এই বিষয় চাঁদপুরের পু’লিশ সুপার মো. মাহবুবুর রহমান জানান, চক্রের মধ্যে পড়ে অনেকেই বিপদগামী হয়। কিন্তু সেই পথে পা বাড়াননি ছে’লেটি। ফলে লো’ভ লালসার উর্ধ্বে উঠে এতোগুলো টাকা ফিরিয়ে দিয়ে অনন্য নজির গড়েছে মো. সজিব নামে এই যুবক।

অটোরিকশা চালকের সততায় পু’লিশ সুপারের নির্দেশে তাকে ৫ হাজার টাকা পুরস্কৃত করা হয়। এছাড়া টাকার মালিক তাকে পুরস্কৃত করবেন বলে জানিয়েছে পু’লিশ। জে’লা প্রশাসনও এই সততার জন্য ওই যুবককে ফুল দিয়ে সংবর্ধিত করে।

এদিকে চাঁদপুরে হা’রানো ৬১ লাখ টাকা ফেরত পেয়ে অটোচালক সজিবকে চাকরি, টাকা অথবা অটোরিকশা পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বিকাশ এজেন্ট আলমগীর হোসেন জুয়েল। সোমবার এ তথ্য জানান তিনি। তিনি বলেন, তার চাহিদা মোতাবেক তাকে পুরস্কার দেয়া হবে।

বিকাশের এজেন্ট আলমগীর হোসেন জুয়েল বলেন, আমি বিশাল ক্ষতির থেকে রক্ষা পেয়েছি। পু’লিশ, অটোচালকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

তিনি বলেন, অটোচালককে নিয়ে আমি বসব। সে যদি চাকরি চায় তাহলে তাকে আমা’র এখানে চাকরি দেব। আর যদি সে টাকা অথবা অটোরিক্সা চায় তাহলে তাকে পু’লিশের মাধ্যমে একটি অটোরিকশা দেব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here